চরিত্রের প্রয়োজনে সব সময় প্রস্তুত-আহমেদ সাব্বির।

চরিত্রের প্রয়োজনে সব সময় প্রস্তুত-আহমেদ সাব্বির।

প্রকাশিত: ১০:২৯ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০২১

নির্মাতা তৌহিদ আশরাফের ঢাকা-১২০৯ এ অভিনয়ের মধ্য দিয়ে আমার প্রথম মুখ্য চরিত্রে আবির্ভাব। যদিও আমি শোবিজে কখনোই অভিনেতা হিসেবে পরিচিত ছিলাম না। সব সময় ক্যামেরার পিছনেই কাজ করেছি।সিরিজটির প্রথম সিজন শেষ করার পর বুঝলাম অদ্ভুত একটা ভালোলাগা কাজ করছে অভিনয়ের প্রতি এবং আমি বারবার অভিনয় করতে চাই। এর মধ্যে বেশ কয়েকটি নাটক, ওয়েব সিরিজ এবং স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য ডাক এসেছে তবে আমাকে সম্মানের সাথে সেসব প্রস্তাব ফিরিয়ে দিতে হয়েছে৷

 

পারিশ্রমিক কিংবা বাজে গল্প এমন কোন বিষয় ছিলনা। আসলে সবগুলো চরিত্র একই রকম ছিলো। আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে অনেকের ভিতরেই এই প্রবণতা রয়েছে যে একজন ব্যক্তিকে কোন একটা চরিত্রে অভিনয় করতে দেখলে বার বার তাকে সেই একই ধরনের চরিত্রে অভিনয় করানো হয়। এতে কার কি লাভ হয় জনিনা তবে আমার মনে হয়েছে একজন অভিনেতার জন্য এটা বেশ ক্ষতিকর। আমি নিজেকে ভাংতে চাই। বিচিত্র চরিত্রে নিজেকে আবিষ্কার করতে চাই।

 

তিনি বলেন এরই মধ্যে আমি একটি চলচ্চিত্র নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। থ্রিডিতে শুট করবো। সিনেমা যেহেতু একটা দীর্ঘ মেয়াদি কাজ সেহেতু সিনেমার কাজ পুরো দমে শুরু করার আগে কিছু কাজ করার কথা ভাবছি।

কিছুদিন আগে পরিচালক আরিফুজ্জামান উজ্জলের সাথে কথা হয়েছে।

 

বেশ ভিন্ন মাত্রার একটি গল্প নিয়ে তার একটি সিরিজের কাজ চলছে। কিছু অংশের চিত্রধারণের কাজও শেষ হয়েছে ইতমধ্যে। সিরিজের গল্প বেশ ভালো লেগেছে এবং আমার ঢাকা ১২০৯ এর সহ অভিনেতা ইমতিয়াজ নিলয় এই সিরিজের একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছে।

 

 

বাকি অভিনয় শিল্পীরাও আমার খুবই পছন্দের। বলতে গেলে নিজে থেকেই পরিচালক কে অনুরোধ করেছি যেন আমাকে তার সিরিজে অভিনয়ের সুযোগ দেয়া হয়। পরিচালকও রাজি তবে কথা হচ্ছে ছাড় না দিয়ে তো আর অভিনেতা হওয়া যায় না৷ আমাকেও একটু ছাড় দিতে হবে। আমার চিরায়ত লুক পরিবর্তন করতে হবে চরিত্রের প্রয়োজনে। এদিক দিয়ে আমারও কোন সমস্যা নেই। চরিত্রের প্রয়োজনে যেকোনো কিছু করতে প্রস্তুত আছি। নিজেকে ভেংগে নতুন করে গড়ে নেবার সুযোগ তো চাইলেই পাওয়া যায় না। তাই সুযোগটা যথা সম্ভব কজে লাগাবো।

 

সংগ্রহে বিডি এক্সপ্রেস নিউজ